হিন্দুধর্মের স্বরূপ-সন্ধানঃ ষষ্ঠ পর্ব

(পঞ্চম পর্ব এখানে) ১১. এই প্রবন্ধে পূর্বে মন্তব্য করা হয়েছিলো, ভারতবর্ষের প্রচলিত সমস্ত ধর্ম ও দর্শন মূলতঃ আর্যদের এই ভূখন্ডে আগমনের ফলাফল। গুরু-শিষ্য পরম্পরাগত যে জ্ঞানচর্চার ইতিহাসের দিকে এ প্রবন্ধে আমাদের মূল মনোযোগ, সে ইতিহাস সম্পর্কে এই উক্তিকে যথাযথ হিসেবে মানা চলে। কিন্তু আর্যদের ভারতে আগমনের পূর্বেও এই ভূখন্ডে উন্নত কৃষিজীবী সভ্যতার অস্তিত্ব ছিলো। প্রত্নতাত্ত্বিকদের …

Continue reading হিন্দুধর্মের স্বরূপ-সন্ধানঃ ষষ্ঠ পর্ব

হিন্দুধর্মের স্বরূপ-সন্ধানঃ পঞ্চম পর্ব

(চতুর্থ পর্ব এখানে) ৯. ভারতবর্ষে জ্ঞানের সকল শাখাই ঐতিহাসিকভাবে ধর্মতত্ত্বের সাথে নিবিড়ভাবে জড়িত ছিলো। এর কারণ, জাগতিক এবং পারমার্থিক সবকিছুকেই ধর্মের আধারে এখানে বিবেচনা করা হোত। এর ফল হয়েছে দ্বিবিধ; একদিকে, সবকিছুকেই ধর্মের প্রেক্ষিতে চিন্তা করায় জ্ঞানের অনেক শাখাই এখানে একটা পর্যায় পর্যন্ত যাওয়ার পর নিশ্চল হয়ে থেমে গেছে, যে কারণে গণিত, জ্যোর্তিবিদ্যা, রসায়ন, বা …

Continue reading হিন্দুধর্মের স্বরূপ-সন্ধানঃ পঞ্চম পর্ব

হিন্দুধর্মের স্বরূপ-সন্ধানঃ চতুর্থ পর্ব

(প্রথম পর্ব এখানে) (দ্বিতীয় পর্ব এখানে) (তৃতীয় পর্ব এখানে) ৬. এক্ষণে প্রশ্ন উঠতে পারে, সাধারণের মধ্যে প্রচলিত ধর্মকে কি আমরা হিন্দুধর্ম হিসেবে অস্বীকার করছি? না, মোটেই তা নয়। শুধু হিন্দুধর্ম নয়, যেকোন ধর্ম অথবা রিলিজিয়ন সম্পর্কে একটি পরম সত্যি আমাদের মনে রাখতে হবে যে, মানুষ যেভাবে ধর্মকে ব্যাখ্যা করে বা দেখে, ধর্ম আসলে তা-ই। কোন …

Continue reading হিন্দুধর্মের স্বরূপ-সন্ধানঃ চতুর্থ পর্ব