গল্প: স্কেচ-৬

এইবার ঢাকা শহরের যেনো কী হয়েছে! চৈত্র মাস পার হয়ে গেলো এখনও তেমন গরমই পড়লো না। গরম তো দূরের কথা, উল্টো সারাদিন ভরা বর্ষার মতো লাগাতার বৃষ্টি লেগেই আছে। এই শহরের সাথে বৃষ্টি একদমই খাপ খায় না। প্রতিবার বৃষ্টিতে প্রকৃতির নবযৌবন লাভ করার কথা। সেখানে এ শহরে প্রকৃতির অস্তিত্ব খুঁজে পাওয়াই খড়ের গাদায় সূঁচ খোঁজার …

Continue reading গল্প: স্কেচ-৬

Advertisements

গল্পঃ সময়

ঘড়ির দিকে একবার তাকালো সে। একটা ত্রিশ। সমস্ত দিনের ব্যস্ততায় যেসব ভুলে থাকা যায়, ঘড়িতে একটা অনির্দিষ্ট সময় যাওয়ার পর সেসবের সবকিছুই একটা একটা করে এসে ভিড় জমায়। এই যেমন সারাদিন কি তার মনে ছিল মার ক্যান্সার! অথচ সারাদিন তার মাকে নিয়েই ব্যস্ত ছিল। মাসকয়েক আগে ক্যান্সার ধরা পড়ার পর থেকেই নিয়মিত মাকে কেমো দিয়ে …

Continue reading গল্পঃ সময়

দুইটি অণুগল্প

স্কেচ-৪ এক মৃদু আলো ঘরটিকে অনুজ্বলতায় ঘিরে রাখে, আর অসংখ্য ধোঁয়ার কুন্ডলী সাপের মত প্যাঁচ খেয়ে সর্বত্র ছড়িয়ে থাকে; বেশ কয়েকটি তরুণ ঘরের এদিকে-ওদিকে বিচিত্র অবস্থানে অবস্থিত। বাইরের কোন ভদ্রলোক হঠাৎ এই আড্ডায় প্রবেশ করলে প্রথমেই নাক চেপে ধরবে; যদি পরিচিত হয় এই বিশেষ ধোঁয়ার সাথে, তাহলে যুবসমাজের অবক্ষয়ের ব্যাপারে দীর্ঘদিন ধরে শুনে আসা অসংখ্য …

Continue reading দুইটি অণুগল্প

ছোটগল্পঃ লেপ ও কড়ইগাছের উপকথা

শতবর্ষেরও অধিককাল প্রকৃতির অনুগ্রহ ও অত্যাচরের মাঝে আকাশ ভেদ করে উপরে উঠতে চাওয়ার অহঙ্কার নিয়ে ঠায় দাঁড়িয়ে থাকা একশত কড়ই গাছে হঠাৎ এক মড়ক ছড়িয়ে পড়ে। ঠিক কোনদিন কোন সময় এই মড়ক শুরু হয়েছিল তার হদিস কেউ দিতে পারে না। কর্কট রোগ যেমনি না বলে কয়ে গোপনে শরীরের কোন অঙ্গে বাসা বাঁধে এবং হঠা একদিন …

Continue reading ছোটগল্পঃ লেপ ও কড়ইগাছের উপকথা

স্কেচ-৩

আধঘন্টা বৃষ্টিতেই বাসার সামনের জায়গায় বেশ কয়েকটা ডোবা তৈরী হয়ে গেল। প্রতিটা ডোবাকেই চিন্তা করা যায় ক্ষুদ্রাকৃতির সমুদ্র হিসেবে; সমুদ্রে যেরুপ বৈচিত্র্যপূর্ণ প্রাণের স্পন্দন, এইসব ডোবাতেও সেরুপ অসংখ্য প্রাণ অস্তিত্বরক্ষার সংগ্রামে নিয়োজিত। মানুষের চোখে একেকটা ডোবাকে অনেক ক্ষুদ্রই দেখায়, কিন্তু নিরপেক্ষ দৃষ্টি এই আপাত ক্ষুদ্রত্বের মধ্যেও সমুদ্রসম বিশালত্ব ও বৈচিত্র্য খুজেঁ পায়। বৃষ্টি পড়তেই থাকে, …

Continue reading স্কেচ-৩

গল্প: স্কেচ-২

যেন এক টুকরো মরুভূমি নেমে এসেছে চারিপাশে-মানুষ ও তার আশেপাশের সবকিছু হন্যে হয়ে ঘুরছে একটু পানির জন্য-বিশাল জলাশয় প্রতিনিয়ত চোখের সামনে দেখা দিলেও সামনে এগিয়ে গিয়ে পরিষ্ফূট হয় সবই মরীচিকা-যাবতীয় সব কুকুর তাদের জিহ্বা সম্পূর্ণ উদগত করে পৃথিবীর অবশিষ্ট বাতাসটুকু ফুসফুসে প্রবেশের প্রাণান্ত চেষ্টা করলেও মানুষ, যেহেতু সে সভ্য, বেশ একটা পরিপাটি ভাব করেই থাকতে …

Continue reading গল্প: স্কেচ-২

ছোটগল্প: স্কেচ

শ্রাবণের আকাশ। মেঘাচ্ছন্ন শুধু আকাশ না, সমস্ত পৃথিবীই যেন। মেঘ সাথে নিয়ে আসে অন্ধকার। অন্ধকারে নিমজ্জিত আকাশের নীচেও অন্ধকার, যা মানুষের দুর্ভাগ্যের রূপক হিশেবে চমৎকার মানিয়ে যায়। শতচ্ছিন্ন ইস্কুল ইউনিফর্ম পরিহিত একটা মেয়ে তার বাবার টং দোকান এর পাশে দাঁড়িয়ে বাবাকে ভৎর্সনা করে। গতকাল সন্ধ্যায় অনেক কষ্টে জোগাড় করা একটা পানির বোতল সে রেখেছিল তার …

Continue reading ছোটগল্প: স্কেচ